জিপি ইমারজেন্সি ব্যালেন্স কোড ২০২৩

প্রিয় পাঠক বন্ধু, আজকে আমরা টেলিকম বিষয়ে একটি পোস্ট নিয়ে উপস্থিত হয়েছি আপনাদের মাঝে। এবং আজকের পোস্টটি হতে চলেছে গ্রামীণফোন মোটো ফোন নেটওয়ার্ক সেবা প্রদানকারী কোম্পানিটিকে নিয়ে। মূলত গ্রামীণফোন কোম্পানির একটি সেবা সম্পর্কে আলোচনা করা হবে এখানে। যেটি হচ্ছে গ্রামীণফোন অথবা জিপি ইমারজেন্সি ব্যালেন্স সংক্রান্ত। এই পোস্টটিতে আমরা আপনাদের জানিয়ে দেবো কিভাবে গ্রামীণফোন সিমে ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নেবেন অর্থাৎ ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নেওয়ার কোড।

সুতরাং আপনারা যারা গ্রামীণফোন সিম ব্যবহার করে থাকেন তাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি পোষ্ট হতে চলেছে ঠিক। অনেক সময় আমাদের মোবাইল ব্যালেন্স না থাকার কারণে সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকি আমরা। এমত অবস্থায় রিসার্চ দেওয়ার সুবিধা নেই এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কল করতে গেলে ব্যর্থ হই আমরা। এই সমস্যার সমাধান হিসেবে গ্রামীণফোন কোম্পানিটি ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নামে একটি সেবা নিয়ে এসেছেন যেটি অনেকেই জানেন আবার অনেকেই জানেনা। আবার কিছু সংখ্যক লোক রয়েছে যারা এই সেবাটির কথা জানেন কিন্তু প্রয়োজনে সেবা গ্রহণ করতে পারেন না। এর কারণ ইমারজেন্সি ব্যালেন্স গ্রহণ অর্থাৎ নেওয়ার যে কোর্ট রয়েছে সেটি জানেন না।

এমন ব্যক্তিগণ এখান থেকে ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নেওয়ার কোড সম্পর্কে জানতে পারবেন। এর জন্য অবশ্যই আপনাকে পুরো পোস্টের সাথে থেকে। প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ করতে হবে। অর্থাৎ আমরা আশা করছি আপনি পুরো পোস্টের সাথে থেকে উপকৃত হবে।

জিপি ইমারজেন্সি ব্যালেন্স

গ্রামীন ফোন কোম্পানি তাদের গ্রাহকদের সুবিধার ক্ষেত্রে এই সেবাটি নির্ধারণ করেছেন। গ্রাহক প্রয়োজনে তাদের কাছে ঋণ স্বরূপ সর্বোচ্চ 200 টাকা পর্যন্ত ইমারজেন্সি ব্যালেন্স ব্যবহার করতে পারবেন। এক্ষেত্রে জরুরি মুহূর্তে ব্যবহারকৃত ইমারজেন্সি ব্যালেন্স পরবর্তী রিসার্চ এর সাথে সাথে পরিষদ দিতে হবে। সত্যিকার অর্থে গ্রামীণফোন রিচার্জ এর সাথে সাথে তাদের এমার্জেন্সি লোন কেটে নিয়ে থাকেন। সুতরাং যারা ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নেওয়ার কথা ভাবছেন তারা এই পোষ্টের নিচে ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নেওয়ার কোড সহ আরও বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে জানতে পারবেন।

জিপি ইমারজেন্সি ব্যালেন্স কোড

মোবাইল ব্যালেন্স না থাকলে অনেকেই ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নেওয়ার জন্য আগ্রহী হয়ে থাকেন। যেহেতু সচরাচর ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নেওয়ার প্রয়োজন হয় না এ ক্ষেত্রে অনেকেই ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নেওয়ার কোড টি মনে রাখতে ব্যর্থ। এ কারণেই আপনাদের সহযোগিতার উদ্দেশ্যে এখানে ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নেওয়ার কোড দিয়ে আমরা সহযোগিতা করব। আপনারা যারা ইমারজেন্সি ব্যালেন্স ব্যবহার করতে আগ্রহী তারা অবশ্যই এই কোডটি আপনার গ্রামীন সিম থেকে ডায়াল করে ইমারজেন্সি ব্যালেন্স ব্যবহার করতে পারবেন। তবে সকলের উদ্দেশ্যে একটি বিষয় জানিয়ে রাখা ভাল মোবাইল ব্যালেন্স থাকলে এমার্জেন্সি ব্যালেন্স সেবা গ্রহন করতে পারবেন না। এবং ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নেওয়ার পর সেই ব্যালেন্স দিয়ে এসএমএস ইন্টারনেট কিংবা মিনিট ক্রয় করার সুবিধা দেয়নি গ্রামীন ফোন কোম্পানি।

আশা করি বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন। জিপি ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নিতে ডায়াল করুন *১২১*১*৩# । এটি ডায়ালের পরবর্তী সময়ে এসএমএসের মাধ্যমে আপনাকে জানিয়ে দেওয়া হবে। এমার্জেন্সি ব্যালান্স সর্বনিম্ন ১১ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ২০০ টাকা পর্যন্ত প্রদান করে থাকেন কোম্পানি।

টেলিকম সংক্রান্ত আরো অনেক তথ্য রয়েছে আমাদের ওয়েবসাইটটিতে। যারা টেলিকম সম্পর্কে জানতে আগ্রহী আমাদের এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিভিন্ন বিষয়ে জেনে নিতে পারেন। টেলিকম সংক্রান্ত বিভিন্ন আপডেট তথ্য আপনাদের মাঝে প্রকাশ এর উদ্দেশ্যে কাজ করার ইচ্ছে নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি আমরা। আমাদের সাথে থাকার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।